মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

মহা প্রভুর মন্দির

(১৪৩৪-১৫৩৭) শ্রী অদ্বৈত আচার্য লাউড়ের স্বাধীন রাজা দিব্য সিংহের মন্ত্রী কুবের আচার্যের সুযোগ্য সন্তান। তিনি শ্রী তৈন্য দেবের গুরুত্বপূর্ণ শিষ্যদের অন্যতম । তিনি বৈষ্ণব সাহিত্যে অত্বৈত মহাপ্রবু হিসাবে প্রসিদ্ধি লাভ করেন। লাউড়ের বাজা স্বয়ং অদ্বৈত মহাপ্রভুর শিষ্যত্ব গ্রহণ করেন ও লাউড়ের কৃষ্ণদাশ হন। অদ্বৈত আচার্য়ের বাল্যনাম ছিল কমলাক্ষ।তিনি তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের লাউড় পরগনার নবগ্রামে ১৪৩৫খ্রি: আবির্ভুত হন। মতান্তরে ১৪৩৪খ্রিঃও ধরে নেওয়া হয়। কমলাক্ষ নবদ্বীপে শিক্ষ গ্রহণ করেন । পরে তিনি শান্তিপুরে চতুষপাটি স্থাপন করে সেখানে কিছুদিন অধ্যাপনা করেন। বৈষ্ণব ধর্ম গ্রহণ করার পর তার নাম হয় অদ্বৈত। পঞ্চাদশ শতাব্দিতে অদ্বৈত আচার্য “চৈতন্য বিষয়ক পদ” রচনার সূত্রপাত করেন । অদ্বৈত প্রভুর পূন্যস্মৃতি বিজড়িত স্থান ও সাধনার ফসল পনাতীর্থ বা পণতীর্থ েআজোও এখানে তাঁর স্মৃতি বহন করে চলছে।

কালের কড়াল গ্রাসে অদ্বৈত প্রভুর বাগী ও তার নিম্যিত আশ্রমটি যাদুকাটা নদী (বর্তমানে বাজারগাঁও ও গড়কাটি গ্রামের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত) গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। যা নবগ্রাম নামে খ্যাতছিল।